চক্রবাক

১৪০০ সাল

(কবি-সম্রাট রবীন্দ্রনাথের ‘আজি হতে শতবর্ষ পরে’ পড়িয়া) আজি হতে শত বর্ষ আগে কে কবি, স্মরণ তুমি করেছিলে আমাদেরে শত অনুরাগে, আজি হতে শত বর্ষ আগে! ধেয়ানী গো, রহস্য-দুলাল! উতারি ঘোমটাখানি তোমার আঁখির আগে কবে এলContinue Reading

সিন্ধু হিন্দোল প্রচ্ছদ

অ-নামিকা

তোমারে বন্দনা করি স্বপ্ন-সহচরী লো আমার অনাগত প্রিয়া, আমার পাওয়ার বুকে না-পাওয়ার তৃষ্ণা-জাগানিয়া! তোমারে বন্দনা করি… হে আমার মানস-রঙ্গিণী, অনন্ত-যৌবনা বালা, চিরন্তন বাসনা-সঙ্গিনী! তোমারে বন্দনা করি … নাম-নাহি-জানা ওগো আজো-নাহি-আসা! আমার বন্দনা লহ, লহ ভালবাসা…Continue Reading

ছায়ানট প্রচ্ছদ

অ-বেলায়

বৃথাই ওগো কেঁদে আমার কাটল যামিনী। অবেলাতেই পড়ল ঝরে কোলের কামিনী– ও সে শিথিল কামিনী॥ খেলার জীবন কাটিয়ে হেলায় দিন না যেতেই সন্ধেবেলায় মলিন হেসে চড়ল ভেলায় মরণ-গামিনী। আহা একটু আগে তোমার দ্বারে কেন নামিনি।Continue Reading

জিঞ্জির

অগ্র-পথিক

অগ্র-পথিক হে সেনাদল, জোর  -কদম  চল্ রে চল্। রৌদ্রদগ্ধ মাটিমাখা শোন ভাইরা মোর, বসি বসুধায় নব অভিযান আজিকে তোর! রাখ তৈয়ার হাথেলিতে হাথিয়ার জোয়ান, হান রে নিশিত পাশুপতাস্ত্র অগ্নিবাণ! কোথায় হাতুড়ি কোথা শাবল? অগ্র-পথিক রেContinue Reading

জিঞ্জির

অঘ্রাণের সওগাত

ঋতুর খাঞ্চা ভরিয়া এল কি ধরণির সওগাত? নবীন ধানের আঘ্রাণে আজি অঘ্রাণ হল মাত। ‘গিন্নি-পাগল’ চালের ফির্‌নি তশতরি ভরে নবীনা গিন্নি হাসিতে হাসিতে দিতেছে স্বামীরে, খুশিতে কাঁপিছে হাত। শিরনি বাঁধেন বড়ো বিবি, বাড়ি গন্ধে তেলেসমাত!Continue Reading

সিন্ধু হিন্দোল প্রচ্ছদ

অতল পথের যাত্রী

–দূর প্রান্তর গিরি অজানার মাঝে জানারে খুঁজিয়া ফিরি। হৃদয়ে হৃদয়ে বেদনার শতদল ঘিরিয়া রেখেছে অজানার পদতল। পথে পথে ফিরি, সাথে ফেরে দিবা নিশা, কোথা তাঁর পথ–খুঁজে নাহি মেলে দিশা। কাঁদিয়া বৃথাই আমার নয়ন-জল সাগর হইয়া–করিতেছেContinue Reading

ছায়ানট প্রচ্ছদ

অনাদৃতা

ওরে অভিমানিনী! এমন করে বিদায় নিবি ভুলেও জানিনি। পথ ভুলে তুই আমার ঘরে দু-দিন এসেছিলি, সকল সহা! সকল সয়ে কেবল হেসেছিলি। হেলায় বিদায় দিনু যারে ভেবেছিনু ভুলব তারে হায়! ভোলা কি তা যায়? ওরে হারা-মণি! এখনContinue Reading

ফণী মনসা

অন্তর-ন্যাশন্যাল সঙ্গীত

জাগো—   জাগো অনশন-বন্দী, ওঠো রে যত জগতের লাঞ্ছিত ভাগ্যহত! যত অত্যাচারে আজি বজ্র হানি হাঁকে নিপীড়িত-জন-মন-মথিত বাণী, নব জনম লভি অভিনব ধরণি ওরে ওই আগত॥ আদি শৃঙ্খল সনাতন শাস্ত্র-আচার মূল সর্বনাশের, এরে ভাঙিব এবার!Continue Reading

সন্ধ্যা - কাজী নজরুল ইসলাম

অন্ধ স্বদেশ-দেবতা

ফাঁসির রশ্মি ধরি আসিছে অন্ধ স্বদেশ-দেবতা, পলে পলে অনুসরি মৃত্যু-গহন-যাত্রীদলের লাল পদাঙ্ক-রেখা। যুগযুগান্ত-নির্জিত-ভালে নীল কলঙ্ক-লেখা! নীরন্ধ্র মেঘে অন্ধ আকাশ, অন্ধ তিমির রাতি, কুহেলি-অন্ধ দিগন্তিকার হস্তে নিভেছে বাতি,− চলে পথহারা অন্ধ দেবতা ধীরে ধীরে এরি মাঝে,Continue Reading

পূবের হাওয়া— কাজী নজরুল ইসলাম

অবসর

লক্ষ্মী আমার! তোমার পথে আজকে অভিসার, অনেক দিনের পর পেয়েছি মুক্তি-রবিবার। দিনের পর দিন গিয়েছে হয়নি আমার ছুটি, বুকের ভিতর ব্যর্থ কাঁদন পড়ত বৃথাই লুটি বসে   ঢুলত আঁখি দুটি! আহা আজ পেয়েছি মুক্ত হাওয়া লাগলContinue Reading

দোলন-চাঁপা প্রচ্ছদ

অবেলার ডাক

  অনেক করে বাসতে ভালো পারিনি মা তখন যারে, আজ অবেলায় তারেই মনে পড়ছে কেন বারেবারে॥   আজ মনে হয় রোজ রাতে সে ঘুম পাড়াত নয়ন চুমে, চুমুর পরে চুম দিয়ে ফের হান্‌তে আঘাত ভোরেরContinue Reading

সিন্ধু হিন্দোল প্রচ্ছদ

অভিযান

নতুন পথের যাত্রা পথিক চালাও অভিযান! উচ্চকণ্ঠে উচ্চারো আজ– ‘মানুষ মহীয়ান!’ চারদিকে আজ ভীরুর মেলা, খেলবি কে আয় নতুন খেলা? জোয়ার জলে ভাসিয়ে ভেলা বাইবি কে উজান? পাতাল ফেড়ে চলবি মাতাল স্বর্গে দিবি টান॥ সমর-সাজেরContinue Reading

বিষের বাঁশী

অভিশাপ

আমি বিধির বিধান ভাঙিয়াছি, আমি এমনি শক্তিমান! মম চরণের তলে, মরণের মার খেয়ে মরে ভগবান। আদি ও অন্তহীন আজ মনে পড়ে সেই দিন – প্রথম যেদিন আপনার মাঝে আপনি জাগিনু আমি, আর চিৎকার করি কাঁদিয়া উঠিলContinue Reading

চিত্তনামা : কাজী নজরুল ইসলাম

অর্ঘ্য

হায় চির-ভোলা! হিমালয় হতে অমৃত আনিতে গিয়া ফিরিয়া এলে যে নীলকণ্ঠের মৃত্যু-গরল পিয়া! কেন এত ভালো বেসেছিলে তুমি এই ধরণির ধূলি? দেবতারা তাই দামামা বাজায়ে স্বর্গে লইল তুলি! হুগলি ৩রা আষাঢ়, ১৩৩২Continue Reading

ফণী মনসা

অশ্বিনীকুমার

আজ যবে প্রভাতের নব যাত্রীদল ডেকে গেল রাত্রিশেষে, ‘চল আগে চল’, – ‘চল আগে চল’ গাহে ঘুম-জাগা পাখি, কুয়াশা-মশারি ঠেলে জাগে রক্ত-আঁখি নবারুণ নব আশা। আজি এই সাথে, এই নব জাগরণ-আনা নব প্রাতে তোমারে স্মরিনুContinue Reading

অগ্নিবীণা-কাজী নজরুল ইসলাম

আগমনী

এ কী রণ-বাজা বাজে ঘন ঘন – ঝন রনরনরন ঝনঝন! সে কী দমকি দমকি ধমকি ধমকি দামা দ্রিমি দ্রিমি গমকি গমকি    ওঠে চোটে, চোটে, ছোটে লোটে ফোটে!    বহ্নি ফিনিক চমকি চমকি    ঢাল-তলোয়ারেContinue Reading

দোলন-চাঁপা প্রচ্ছদ

আজ সৃষ্টি-সুখের উল্লাসে

   আজ সৃষ্টি সুখের উল্লাসে– মোর মুখ হাসে মোর চোখ হাসে মোর টগবগিয়ে খুন হাসে আজ সৃষ্টি সুখের উল্লাসে।       আজকে আমার রুদ্ধ প্রাণের পল্বলে    বান ডেকে ঐ জাগল জোয়ার দুয়ার – ভাঙাContinue Reading

চক্রবাক

আড়াল

আমি কি আড়াল করিয়া রেখেছি তব বন্ধুর মুখ? না জানিয়া আমি না জানি কতই দিয়াছি তোমায় দুখ। তোমার কাননে দখিনা পবন এনেছিল ফুল পূজা-আয়োজন, আমি এনু ঝড় বিধাতার ভুল–ভণ্ডুল করি সব, আমার অশ্রু-মেঘে ভেসে গেলContinue Reading

অগ্নিবীণা-কাজী নজরুল ইসলাম

আনোয়ার

স্থান – প্রহরী-বেষ্টিত অন্ধকার কারাগৃহ, কনস্ট্যান্টিনোপল। কাল – অমাবস্যার নিশীথ রাত্রি। চারিদিক নিস্তব্ধ নির্বাক। সেই মৌনা নিশীথিনীকে ব্যথা দিতেছিল শুধু কাফ্রি-সান্ত্রির পায়চারির বিশ্রী খটখট শব্দ। ওই জিন্দানখানায় মহাবাহু আনোয়ারের জাতীয় সৈন্যদলের সহকারী এক তরুণ সেনানীContinue Reading

জিঞ্জির

আমানুল্লাহ্

খোশ্-আম্‌দেদ আফগান-শের! – অশ্রুরুদ্ধ কণ্ঠে আজ– সালাম জানায় মুসলিম-হিন্দ শরমে নোয়ায়ে শির বে-তাজ! বান্দা যাহারা বন্দেগী ছাড়া কী দিবে তাহারা, শাহানশাহ্! নাই সে ভারত মানুষের দেশ! এ শুধু পশুর কতল‌্গাহ্! দস্তে তোমার দস্ত রাখিয়া নাইContinue Reading