» » অরুণাচল বসুকে লেখা পত্র

যাদবপুর.টি-বি-হাসপাতাল

অরুণ!

সাতদিন হয়ে গেল এখানে এসেছি। বড় এক-একা ঠেকছে এখানে। সারাদিন চুপচাপ কাটাতে হয়। বিকেলে কেউ এলে আনন্দে অধীর হয়ে পড়ি। মেজদা[১] নিয়মিত আসে, কিন্তু সুভাষ নিয়মিত আসে না। কাল মেজবৌদি-মাসিমকে[২] নিয়ে মেজদা এসেছিল। চলে যাবার পর মন বড় খারাপ হয়ে গেল। বাস্তবিক শ্যামবাজারের ঐ পরিবেশ ছেড়ে এসে রীতিমত কষ্ট পাছি।

তুই কি এখনো দাঙ্গার অবরোধের মধ্যে আছিস? না কলকাতায় যাতায়াত করতে পারছিস? যাই হোক, সুযোগ পেলেই আমার সঙ্গে দেখা করবি। দেখা করবার সময়—বিকাল চারটে থেকে ছ’টা। শিয়ালদা দিয়ে ট্রেনে করে আসতে পারিস, কিম্বা ৮এ বাসে। এখানে ‘লেডী মেরী হাৰ্বাট ব্লক’ এক নম্বর বেডে আছি। আশা করি আমার চিঠি পাবি। দেখা করতে দেরি হলে চিঠি দিস।[৩]

৮।৪।১৯৪৭—সুকান্ত

সূত্রনির্দেশ ও টীকা

  1. জেঠতুতো দাদা শ্রীরাখাল ভট্টাচার্য।
  2. পূর্বোল্লিখিত রেণু দেবী ও সুকাত্তর বড় মাসি।
  3. অরুণাচলকে লেখা সুকাত্তর সর্বশেষ চিঠি।