বিদ্রোহীর বাণী

দোহাই তোদের! এবার তোরা সত্যি করে সত্য বল্!

ঢের দেখালি ঢাক ঢাক আর গুড় গুড়, ঢের মিথ্যা ছল।

এবার তোরা সত্য বল॥

পেটে এক আর মুখে আর এক – এই যে তোদের ভণ্ডামি,

এতেই তোরা লোক হাসালি, বিশ্বে হলি কম-দামি।

নিজের কাছেও ক্ষুদ্র হলি আপন ফাঁকির আপশোশে,

বাইরে ফাঁকা পাঁইতারা তাই, নাই তলোয়ার খাপ-কোশে।

তাই হলি সব সেরেফ আজ

কাপুরুষ আর ফেরেব-বাজ,

সত্য কথা বলতে ডরাস, তোরা আবার করবি কাজ!

ফোঁপরা ঢেঁকির নেইকো লাজ!

ইলশেগুঁড়ি বৃষ্টি দেখেই ঘর ছুটিস সব রামছাগল!

যুক্তি তোদের খুব বুঝেছি, দুধকে দুধ আর জলকে জল!

এবার তোরা সত্য বল॥

বুকের ভিতর ছ-পাই ন-পাই, মুখে বলিস স্বরাজ চাই,

স্বরাজ কথার মানে তোদের ক্রমেই হচ্চে দরাজ তাই!

‘ভারত হবে ভারতবাসীর’ – এই কথাটাও বলতে ভয়!

সেই বুড়োদের বলিস নেতা – তাদের কথায় চলতে হয়!

বল রে তোরা বল নবীন –

চাইনে এসব জ্ঞান-প্রবীণ!

স্ব-স্বরূপে দেশকে ক্লীব করছে এরা দিনকে দিন,

চায় না এরা – হই স্বাধীন!

কর্তা হবার শখ সবারই, স্বরাজ-ফরাজ ছল কেবল!

ফাঁকা প্রেমের ফুসমন্তর, মুখ সরল আর মন গরল!

এবার তোরা সত্য বল॥

মহান-চেতা নেতার দলে তোল রে তরুণ তোদের নায়,

ওঁরা মোদের দেবতা, সবাই করব প্রণাম ওঁদের পায়।

জানিস তো ভাই শেষ বয়সে স্বতই সবার মরতে ভয়,

ঝড়-তুফানে তাঁদের দিয়ে নয় তরি পার করতে নয়।

জোয়ানরা হাল ধরবে তার

করবে তরি তুফান পার!

জয় মা বলে মাল্লা তরুণ ওই তুফানে লাখ হাজার

প্রাণ দিয়ে ত্রাণ করবে মার!

সেদিন করিস এই নেতাদের ধ্বংস-শেষের সৃষ্টি কল।

ভয়-ভীরুতা থাকতে দেশের প্রেম ফলাবে ঘণ্টা ফল!

এবার তোরা সত্য বল॥

ধর্ম-কথা প্রেমের বাণী জানি মহান উচ্চ খুব,

কিন্তু সাপের দাঁত না ভেঙে মন্ত্র ঝাড়ে যে বেকুব!

‘ব্যাঘ্র সাহেব, হিংসে ছাড়ো, পড়বে এসো বেদান্ত!’

কয় যদি ছাগ, লাফ দিয়ে বাঘ অমনি হবে কৃতান্ত!

থাকতে বাঘের দন্ত-নখ

বিফল ভাই ওই প্রেম-সেবক!

চোখের জলে ডুবলে গর্ব শার্দুলও হয় বেদ-পাঠক,

প্রেম মানে না খুন-খাদক।

ধর্মগুরু ধর্ম শোনান, পুরুষ ছেলে যুদ্ধে চল।

সেও ভি আচ্ছা, মরব পিয়ে মৃত্যু-শোণিত-অ্যালকোহল!

এবার তোরা সত্য বল॥

প্রেমিক ঠাকুর মন্দিরে যান, গাড়ুন সেথায় আস্তানা!

শবে শিবায় শিব কেশবের – তৌবা – তাঁদের রাস্তা না!

মৃতের সামিল এখন ওঁরা, পূজা ওঁদের জোরসে হোক,

ধর্মগুরু গোর-সমাধি পূজে যেমন নিত্য লোক!

তরুণ চাহে যুদ্ধ-ভূম!

মুক্তি-সেনা চায় হুকুম!

চাই না ‘নেতা’, চাই ‘জেনারেল’, প্রাণ-মাতনের ছুটুক ধূম!

মানব-মেধের যজ্ঞধূম।

প্রাণ-আঙুরের নিঙরানো রস – সেই আমাদের শান্তি-জল।

সোনা-মানিক ভাইরা আমার ! আয় যাবি কে তরতে চল।

এবার তোরা সত্য বল॥

যেথায় মিথ্যা ভণ্ডামি ভাই করব সেথায় বিদ্রোহ!

ধামা-ধরা! জামা-ধরা! মরণ-ভীতু! চুপ রহো!

আমরা জানি সোজা কথা, পূর্ণ স্বাধীন করব দেশ!

এই দুলালুম বিজয়-নিশান, মরতে আছি – মরব শেষ!

নরম গরম পচে গেছে, আমরা নবীন চরম দল!

ডুবেছি না ডুবতে আছি, স্বর্গ কিংবা পাতাল-তল!